মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

আমাদের অর্জনসমূহ

ভর্তির হার ৯৬%, ঝরে পড়ার হার হ্রাস করে ৬.৭%, সকল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে Email ID, Facebook  একাউন্ট খোলা হয়েছে। এর ফলে অফিস এবং বিদ্যালয়ের সহজ যোগাযোগ স্হাপন হয়েছে এবং সেবা গ্রহণের দ্বার উন্মোচিত হয়েছে। ০৩(তিন) জন শিক্ষার্থী জাতীয় পর্যায়ে সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় ১ম স্হান অর্জন করে জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা সপ্তাহ-২০১৭ মহামান্য রাষ্টপতির নিকট হতে পরষ্কার গ্রহণ করেছে।শিক্ষাকে সর্বস্তরে ছড়িয়ে দেবার জন্য বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক গৃহীত পদক্ষেপসমূহের মধ্যে অন্যতম হলো- শতভাগ ছাত্রছাত্রীর মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ কার্যক্রম। নারী শিক্ষাকে এগিয়ে নেবার জন্য প্রাথমিক থেকে মাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত চালু করা হয়েছে উপবৃত্তি ব্যবস্থা। বর্তমান ২৬ হাজার ১৯৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে নতুন করে জাতীয়করণ করেছে। উল্লেখযোগ্য সংখ্যক শিক্ষকের চাকরি সরকারীকরণ করা হয়েছে। ১৯৯০ সালে বিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়া শিশুর শতকরা হার ছিল ৬১, বর্তমানে তা উন্নীত হয়েছে শতকরা ৯৭.৭ ভাগে। শিক্ষার সুবিধাবঞ্চিত গরিব ও মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে “শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট আইন, ২০১২ প্রণয়ন করা হয়েছে, গঠন করা হয়েছে "শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট”।

ছবি


সংযুক্তি



Share with :

Facebook Twitter